একটি পরিচ্ছন্ন উপজেলা গড়া আমার প্রধান লক্ষ্য : মাহবুবা মোরশেদা রানু

209

পটুয়াখালী থেকে আকাশ বৈরাগী সনেট, ক্যামেরায় : আরিফুর রহমানআসন্ন উপজেলা পরিষদের নির্বাচনের হাওয়া লেগেছে বাংলাদেশের সকল উপজেলায়। সেই হাওয়া লেগেছে মোংলা উপজেলাতেও। পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের চতুর্থ ধাপে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে মোংলা উপজেলা পরিষদ নির্বাচন। সেখানে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হয়েছেন মংলা পৌর মহিলা যুবলীগের সভানেত্রী সুমি লীলা। ইতিমধ্যেই তিনি ভোটারদের দ্বারে দ্বারে যাচ্ছেন এবং তাদের নিকট দোয়া চাচ্ছেন। সাধারন জনগনের পাশে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ভাবে তাদের পাশে থাকার দরুন অনেক উৎসাহ পাচ্ছেন তরুন, বৃদ্ধ থেকে শুরু করে সকলের কাছে। আপামর সাধারন মানুষের কাছে এক আস্থার নাম মাহবুবা মোরশেদা রানু।  তার সাথে আলাপনে তিনি cintv24.com

কে বলেন,আমি ছাত্র জীবন থেকেই দুঃখী মানুষের কষ্টে যতটুকু পারতাম তাদের সহায়তা করতাম। পরবর্তীতে সাধারন মানুষের সেবা করার লক্ষ্য নিয়েই রাজনীতির সাথে আমি জরিয়ে পড়ি। তাদের দুখ কষ্ট দূর করার জন্যই সমাজসেবার কাজে আসা।  আমি নির্বাচিত হলে প্রথমে একটি পরিচ্ছন্ন উপজেলার নাগরিক সেবা নিশ্চিত করব। তাছাড়া আমি নারীদের অধিকার আদায়ে এখন যেমন আছি তার চেয়ে বেশি সক্রিয় ভাবে কাজ করতে পারব। আমার ইচ্ছা একটি দুর্নীতিমুক্ত সেবার লক্ষ্যে কাজ করাআমাদের এলাকার অনেক মানুষ এখনো দরিদ্র। প্রকৃতির সাথে তারা প্রতিনিয়ত যুদ্ধ করে বেচে থাকে। আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা দরিদ্র মানুষের কষ্ট দূরীকরণের লক্ষ্যে অনেক ভাতা চালু করছেন। অথচ দুঃখজনক হলেও অপ্রিয় সত্য আমাদের কিছু অসাধু লোভী নেতা এবং স্বজনপ্রীতির ফলে যোগ্য লোকের নিকট প্রাপ্ত সুবিধাটি পৌঁছায় না যার দরুন ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে সরকার এবং সাধারন গরীব দুঃখী মানুষ। তাই আমি নির্বাচিত হলে এসব সমস্যার সমাধান করে সুষম বণ্টন নিশ্চিত করব। তাছাড়া এই এলাকার সুপেয় খাবার পানির প্রবল সমস্যা রয়েছে। আশা করি সরকার সেই দিকটাতেও নজর দিবে।ভোটারদের উদ্দেশ্যে আমার একটাই বার্তা, মির্জাগঞ্জ উপজেলার যারা ভোটার রয়েছেন তারা কোন গুজবে কান দিবেন না। আশা করি আগামী ৩১ শে মার্চ একটি অবাধ নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু নির্বাচন হবে। আপনাদের বিবেকে যদি মনে হয় আমাকে যোগ্য তাহলে আমার পাশে থাকবেন এবং আপনাদের ভোট আপনারাই দেবেন। কারন ভোট দিয়ে জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত করা আপনাদের অধিকার। আপনাদের এই পবিত্র আমানত ভোট অবশ্যই যে যোগ্য তাকে দিবেন এবং সবাই ভাল থাকবেন। আশা করি প্রজাপতি মার্কায় নির্বাচিত হতে পারলে একটি পরিচ্ছন্ন উপজেলা উপহার দিতে পারব।