মাদকের বিরুদ্ধে আরও শক্তিশালী অবস্থানে থাকব : বীর মুক্তিযোদ্ধা রাকিবুল

220
পটুয়াখালী থেকে আকাশ বৈরাগী সনেট
উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলে মাদকের বিরুদ্ধে আরও শক্তিশালী অবস্থানে থেকে মাদকমুক্ত পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলা গড়ার প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন আওয়ামীলীগ থেকে মনোনীত উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা এস এম রাকিবুল আহসান ।
cintv24.com

এর প্রতিনিধির সাথে একান্ত সাক্ষাৎকারে তিনি এই প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন।তিনি বর্তমানে কলাপাড়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। ২০১০ সাল থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত কলাপাড়া পৌরসভার মেয়র হিসেবে অত্যন্ত সুনামের সহিত তার দায়িত্ব পালন করেন। সরেজমিন ঘুরে সাধারন মানুষের মুখে শোনা যায় তার ঐ সময়ে মানুষকে নাগরিক সেবার জন্য তার কাছে যেতে হত না বরং তিনি পৌরবাসীর নাগরিক সেবা তাদের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতেন। মাদকের বিরুদ্ধে তার অবস্থান ছিল খুবই কঠোর যার দরুন তাকে বার বার ষড়যন্ত্রের শিকার হতে হয়েছে। তারপরেও তিনি তার কাজ অব্যাহত রেখেছেন।cintv24.com

এর প্রতিনিধির  সাথে একান্ত সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, প্রথমেই মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিকট আমি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করি আমাকে মনোনীত করার জন্য এবং আমি দোয়া চাই সকলের কাছে যেন এই প্রতীকের সম্মান অক্ষুন্ন রাখতে পারি। স্বাধীনতার সেই লাল সূর্য ,স্বাধীনতার ইতিহাসের ধারক ও বাহক সেই ঐতিহ্যবাহী নৌকা প্রতীক নিয়ে আজ আমি কলাপাড়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছি। উন্নয়নের ব্যাপারে যদি কলাপাড়া উপজেলার প্রেক্ষাপটে বলতে চাই তাহলে পায়রা বন্দর মেগা প্রকল্প, তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র , কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকত পর্যন্ত ফোর লেন রাস্তা সহ আরও কাজ চলমান রয়েছে যা একমাত্র আমাদের জননেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অবদান। সেই উন্নয়নের ধারাকে অব্যাহত রেখে গ্রামকে শহর করার যে চ্যালেঞ্জ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নিয়েছেন তা একমাত্র সম্ভব হবে এই নৌকা প্রতীকে ভোট দিলে। তাই আপামর কলাপাড়া উপজেলার সকলের নিকট আমার আবেদন এই উন্নয়নের ধারা থামতে দিবেন না। নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে সেই ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখবেন। শুধু উন্নয়ন নয় করতে হবে নৈতিকতার উন্নয়ন। এলাকাকে মাদকমুক্ত করে গড়ে তোলা সহজ কাজ নয়। আপনারা বিগত ২০১০ পরবর্তী পাঁচ বছর দেখেছেন কিভাবে এলাকাকে মাদকমুক্ত রাখতে হয়। আমি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলে আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে রক্ষা করার স্বার্থে আরও কঠিন ভাবে মাদকের বিরুদ্ধে অবস্থান নিবো। ১৯৭১ সালে  যুদ্ধ করেছি স্বাধীনতার জন্য আর এখন করব আমাদের দেশের ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে বাঁচানোর জন্য যাতে তারা ২০৪১ সালে বাংলাদেশকে বিশ্বের দরবারে একটি উন্নত রাষ্ট্র হিসেবে পরিচিতি লাভ করাতে পারে। এবং সেখানে কলাপাড়া হবে সেই উন্নত দেশের মডেল উপজেলা। তাই আগামী ৩১ শে মার্চ নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে আপনাদের সেবা করার এবং মাদকমুক্ত একটি সুন্দর উপজেলা গড়তে পাশে থাকবেন