সাতক্ষীরার তলুইগাছা সীমান্তে ১০ কেজি রুপা আটক

244
বদরুজ্জামান খোকা, জেলা প্রতিনিধি সাতক্ষীরাঃসাতক্ষীরা সদর উপজেলার এক নম্বর বাঁশদহা ইউনিয়নের তলুইগাছা সীমান্তে ১০ কেজি রূপা আটক করা হয়েছে। ৩৩ ব্যাটলিয়নের বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ বিজিবি এর কৌশলে কারনে এই রূপা আটক করা সম্ভব হয়েছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক ব্যক্তি বলেন তলুইগাছা গ্রামের জনাব আলীর পুত্র আরশাফুল ও আজহারুল দুই ভাই মিলে অনেক দিন এই কাজ করে থাকে। এবং নুরুল ইসলামের পুত্র আব্দুর রশিদ এই রুপা চালান এর সাথে যুক্ত আছে বলে মনে করছে স্থানীয় লোকজন। এ বিষয়ে তলুইগাছার ক্যাম্পের নায়েক সুবেদার কামরুল ইসলাম এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন ভারত থেকে আসার পথে আগেই ওত পেতে থাকা বিজিবি সদস্যরা আজ ১৩ই মে সকাল দশটার দিকে আশরাফুল ও আজারুল কে ব্যাগ ভর্তি মাল ইন্ডিয়া থেকে বাংলাদেশে প্রবেশ করতে দেখে। বুঝতে পেরে বিজিবি সদস্যরা আশরাফুল আজহারুলকে ধাওয়া করলে তারা তাদের কাছে রক্ষিত ব্যাগটি পুকুরে ফেলে দিয়ে পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে বিজিবি সদস্যরা পুকুর থেকে ব্যাগটি উদ্ধার করে ক্যাম্পে নিয়ে আসে। নায়েব সুবেদার  আরো বলেন যে, এই ব্যাগে রুপা না সোনা না লোহা নিশ্চিত জানা যায়নি। আমাদের হেডকোয়াটারে নিয়ে এই মাল খোলা হবে। সেজন্য এতে প্রকৃত কি আছে এখনো পর্যন্ত সঠিকভাবে জানা যায়নি। এ বিষয়ে বাঁশদহা ইউনিয়নের 9 নম্বর  ওয়ার্ড সদস্য  আব্দুস সামাদের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন আমিও শুনেছি ১০ কেজি রুপা বিজিবি সদস্যরা ধরেছে। কিন্তু কোনো আসামি ধরতে পারিনি। আমি চাই সমস্ত রকমের চোরাচালান বন্ধ হোক এ বিষয়ে প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।