খুলনায় আশঙ্কাজনক হারে বাড়ছে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা

207
মোঃ আল আমিন খান, খুলনা ব্যুরো   
সোমবার সন্ধ্যা ৬টা থেকে মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত নতুন করে নয়জন ডেঙ্গু রোগী খুলনার বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এ নিয়ে খুলনায় চিকিৎসাধীন রোগীর সংখ্যা দাঁড়ালো ৩৯ জনে। ডেঙ্গু এখন সারাদেশে ছড়িয়ে পড়েছে। এর প্রভাব থেকে রক্ষা পাচ্ছে না খুলনাও। আশঙ্কাজনক হারে প্রতিদিনই খুলনার হাসপাতালে বাড়ছে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা। খুলনা সির্ভিল সার্জনের কার্যালয় থেকে জানা গেছে, খুলনায় মোট ডেঙ্গু রোগী ৮২ জন। এরমধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৪৩ জন। এছাড়া বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন ৩৯ জন রোগী। এরমধ্যে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ (কুমেক) হাসপাতালে ২৭ জন, জেনারেল হাসপাতালে দু’জন, বেসরকারি সিটি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ছয়জন, ইসলামী ব্যাংক হাসপাতালে তিনজন এবং ফুলতলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে একজন চিকিৎসাধীন। ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি রোগীর তথ্য বা সংখ্যা দিতে অনেক হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সাংবাদিকদের সঙ্গে নানা তালবাহনা করছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এদিকে, খুলনার অন্যতম সরকারি জেনারেল হাসপাতালে (সদর হাসপাতাল) ডেঙ্গু কীট বরাদ্দ দেওয়া হয়নি। হাসপাতালটি নিজস্ব অর্থায়নে কিছু কীট কিনেছে। এগুলো দরিদ্র ও হতদরিদ্র রোগীদের জন্য বিনামূল্যে ডেঙ্গু পরীক্ষার কাজে ব্যবহৃত হচ্ছে। মধ্যবিত্ত বা উচ্চবিত্ত কোনো রোগী এ হাসপাতালে এলে, তাদের পাঠিয়ে দেওয়া হচ্ছে খুমেক হাসপাতালসহ বাইরের ক্লিনিকে।
খুলনার সিভিল সার্জন ডা. এ এস এম আবদুর রাজ্জাক জানান, খুলনা জেনারেল হাসপাতালে নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় কিছু ডেঙ্গু কীট কেনা হয়েছে। জেনারেল হাসপাতাল ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সগুলোয় সেগুলো পাঠানো হয়েছে। এগুলো শুধুমাত্র দরিদ্র রোগীদের জন্য বরাদ্দ রাখা হয়েছে।